আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান

হ্যালো বন্ধুরা, কেমন আছেন সবাই? আশা করি সকলেই খুব ভালো আছেন। আপনারা অনেকেই আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। আজকে আমি আপনাদেরকে আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান সম্পর্কে বলবো। তো চলুন শুরু করা যাক।

আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান

আপনি অনলাইনে বা অফলাইনে বিভিন্ন উপায়ে আপনার আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান করতে পারেন।

অনলাইন পদ্ধতি:

১. e-Porcha ওয়েবসাইট:

  • পরিদর্শন করুন: https://eporcha.gov.bd/
  • বিভাগ, জেলা, উপজেলা নির্বাচন করুন।
  • খতিয়ানের ধরণ থেকে “আর এস” নির্বাচন করুন।
  • মৌজা এবং খতিয়ান নং/দাগ নাম্বার/মালিকের নাম দিয়ে অনুসন্ধান করুন।

২. ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট:

  • পরিদর্শন করুন: <ভুল URL সরানো হয়েছে>
  • “সার্ভিস” মেনু থেকে “খতিয়ান অনুসন্ধান” নির্বাচন করুন।
  • প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করে অনুসন্ধান করুন।

৩. মোবাইল অ্যাপ:

  • “ভূমি অ্যাপ” ডাউনলোড করুন।
  • অ্যাপটিতে প্রবেশ করে “খতিয়ান অনুসন্ধান” বিকল্পটি নির্বাচন করুন।
  • প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করে অনুসন্ধান করুন।

অফলাইন পদ্ধতি:

১. উপজেলা ভূমি অফিস:

  • আপনার এলাকার উপজেলা ভূমি অফিসে যান।
  • “খতিয়ান অনুসন্ধান” আবেদনপত্র পূরণ করুন।
  • প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিন।
  • আবেদনপত্রের সাথে নির্ধারিত ফি প্রদান করুন।
  • কিছুদিন পর আপনার খতিয়ানের প্রিন্টেড কপি পাবেন।

২. ইউনিয়ন ভূমি অফিস:

  • আপনার এলাকার ইউনিয়ন ভূমি অফিসে যান।
  • উপরে উল্লেখিত পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

৩. খতিয়ানের মালিকের সাথে যোগাযোগ:

  • আপনি যদি খতিয়ানের মালিককে চেনেন, তাহলে সরাসরি তার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।
  • তার কাছ থেকে খতিয়ানের একটি অনুলিপি পেতে পারেন।

প্রয়োজনীয় তথ্য:

  • বিভাগ
  • জেলা
  • উপজেলা
  • মৌজা
  • খতিয়ান নং/দাগ নাম্বার/মালিকের নাম

অন্যান্য তথ্য:

  • আপনি একাধিক খতিয়ান একসাথে অনুসন্ধান করতে পারেন।
  • আপনি খতিয়ানের একটি অনুলিপি ডাউনলোড এবং প্রিন্ট করতে পারেন।
  • আপনার যদি খতিয়ান সম্পর্কে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে আপনি ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের হেল্পলাইনে (+880 2 7169200) যোগাযোগ করতে পারেন।

আমি আশা করি এই তথ্য আপনার আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান করতে সাহায্য করবে।

আরও সাহায্যের প্রয়োজনে আমাকে জানাতে দ্বিধা করবেন না।

আর এস খতিয়ান অনলাইন চেক

আপনি বিভিন্ন উপায়ে অনলাইনে আপনার আর এস খতিয়ান চেক করতে পারেন।

জনপ্রিয় পদ্ধতি:

১. e-Porcha ওয়েবসাইট:

  • পরিদর্শন করুন: https://eporcha.gov.bd/
  • বিভাগ, জেলা, উপজেলা নির্বাচন করুন।
  • খতিয়ানের ধরণ থেকে “আর এস” নির্বাচন করুন।
  • মৌজা এবং খতিয়ান নং/দাগ নাম্বার/মালিকের নাম দিয়ে অনুসন্ধান করুন।

২. ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট:

  • পরিদর্শন করুন: <ভুল URL সরানো হয়েছে> (ভুল URL সরানো হয়েছে)
  • “সার্ভিস” মেনু থেকে “খতিয়ান অনুসন্ধান” নির্বাচন করুন।
  • প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করে অনুসন্ধান করুন।
আরো পড়ুনঃ  ঢাকা থেকে কক্সবাজারের দূরত্ব

৩. মোবাইল অ্যাপ:

  • “ভূমি অ্যাপ” ডাউনলোড করুন।
  • অ্যাপটিতে প্রবেশ করে “খতিয়ান অনুসন্ধান” বিকল্পটি নির্বাচন করুন।
  • প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করে অনুসন্ধান করুন।

বিকল্প পদ্ধতি:

  • বাংলাদেশ ল্যান্ড রেকর্ডস অ্যান্ড সার্ভেজ ডিপার্টমেন্টের (BLRS) ওয়েবসাইট: <ভুল URL সরানো হয়েছে> (ভুল URL সরানো হয়েছে)
  • বাংলাদেশ সেবা (bKash) অ্যাপ: https://www.bkash.com/
  • Teletalk “খতিয়ান” অ্যাপ: <ভুল URL সরানো হয়েছে>

প্রয়োজনীয় তথ্য:

  • বিভাগ
  • জেলা
  • উপজেলা
  • মৌজা
  • খতিয়ান নং/দাগ নাম্বার/মালিকের নাম

কিছু টিপস:

  • আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র (NID) নম্বর ব্যবহার করে অনুসন্ধান করলে আপনার খতিয়ান খুঁজে পাওয়া সহজ হবে।
  • আপনি যদি আপনার খতিয়ান নম্বর না জানেন, তাহলে আপনি মৌজা এবং মালিকের নাম ব্যবহার করে অনুসন্ধান করতে পারেন।
  • আপনি যদি আপনার খতিয়ানের একটি অনুলিপি প্রিন্ট করতে চান, তাহলে আপনি e-Porcha ওয়েবসাইট বা ভূমি অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন।

আপনার আরও সাহায্যের প্রয়োজনে, নির্দ্বিধায় আমাকে জিজ্ঞাসা করুন।

নামজারি খতিয়ান অনুসন্ধান

আপনি অনলাইনে বা অফলাইনে বিভিন্ন উপায়ে আপনার নামজারি খতিয়ান অনুসন্ধান করতে পারেন।

অনলাইন পদ্ধতি:

১. e-Porcha ওয়েবসাইট:

  • পরিদর্শন করুন: https://eporcha.gov.bd/https://eporcha.gov.bd/
  • মেনু থেকে “নামজারি খতিয়ান” নির্বাচন করুন।
  • বিভাগ, জেলা, উপজেলা, মৌজা এবং খতিয়ান নং দিয়ে অনুসন্ধান করুন।

২. ভূমি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট:

  • পরিদর্শন করুন: https://dol.gov.bd/
  • “সার্ভিস” মেনু থেকে “নামজারি” নির্বাচন করুন।
  • “আবেদন ট্র্যাকিং” বিকল্পটি ব্যবহার করে আপনার নামজারি আবেদনের অবস্থা সম্পর্কে জানতে পারবেন।

৩. মোবাইল অ্যাপ:

  • “ভূমি অ্যাপ” ডাউনলোড করুন।
  • অ্যাপটিতে প্রবেশ করে “নামজারি” বিকল্পটি নির্বাচন করুন।
  • প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করে অনুসন্ধান করুন।

অফলাইন পদ্ধতি:

১. উপজেলা ভূমি অফিস:

  • আপনার এলাকার উপজেলা ভূমি অফিসে যান।
  • “নামজারি খতিয়ান অনুসন্ধান” আবেদনপত্র পূরণ করুন।
  • প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিন।
  • আবেদনপত্রের সাথে নির্ধারিত ফি প্রদান করুন।
  • কিছুদিন পর আপনার নামজারি খতিয়ানের প্রিন্টেড কপি পাবেন।

২. ইউনিয়ন ভূমি অফিস:

  • আপনার এলাকার ইউনিয়ন ভূমি অফিসে যান।
  • উপরে উল্লেখিত পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

প্রয়োজনীয় তথ্য:

  • বিভাগ
  • জেলা
  • উপজেলা
  • মৌজা
  • খতিয়ান নং
  • আবেদনকারীর নাম
  • আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয়পত্র (NID) নম্বর

অন্যান্য তথ্য:

  • আপনি একাধিক নামজারি খতিয়ান একসাথে অনুসন্ধান করতে পারেন।
  • আপনি নামজারি খতিয়ানের একটি অনুলিপি ডাউনলোড এবং প্রিন্ট করতে পারেন।
  • আপনার যদি নামজারি খতিয়ান সম্পর্কে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে আপনি ভূমি মন্ত্রণালয়ের হেল্পলাইনে (+880 2 7169200) যোগাযোগ করতে পারেন।

আমি আশা করি এই তথ্য আপনার নামজারি খতিয়ান অনুসন্ধান করতে সাহায্য করবে।

বি আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান

আপনি বিভিন্ন উপায়ে অনলাইনে বা অফলাইনে আপনার বি আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান করতে পারেন।

অনলাইন পদ্ধতি:

১. e-Porcha ওয়েবসাইট:

  • পরিদর্শন করুন: https://eporcha.gov.bd/https://eporcha.gov.bd/
  • বিভাগ, জেলা, উপজেলা নির্বাচন করুন।
  • খতিয়ানের ধরণ থেকে “বি আর এস” নির্বাচন করুন।
  • মৌজা এবং খতিয়ান নং/দাগ নাম্বার/মালিকের নাম দিয়ে অনুসন্ধান করুন।

২. ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের ওয়েবসাইট:

  • পরিদর্শন করুন: <ভুল URL সরানো হয়েছে>: <ভুল URL সরানো হয়েছে>
  • “সার্ভিস” মেনু থেকে “খতিয়ান অনুসন্ধান” নির্বাচন করুন।
  • প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করে অনুসন্ধান করুন।
আরো পড়ুনঃ  শিলং নাইট তীর রেজাল্ট লিস্ট

৩. মোবাইল অ্যাপ:

  • “ভূমি অ্যাপ” ডাউনলোড করুন।
  • অ্যাপটিতে প্রবেশ করে “খতিয়ান অনুসন্ধান” বিকল্পটি নির্বাচন করুন।
  • প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করে অনুসন্ধান করুন।

অফলাইন পদ্ধতি:

১. উপজেলা ভূমি অফিস:

  • আপনার এলাকার উপজেলা ভূমি অফিসে যান।
  • “খতিয়ান অনুসন্ধান” আবেদনপত্র পূরণ করুন।
  • প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিন।
  • আবেদনপত্রের সাথে নির্ধারিত ফি প্রদান করুন।
  • কিছুদিন পর আপনার খতিয়ানের প্রিন্টেড কপি পাবেন।

২. ইউনিয়ন ভূমি অফিস:

  • আপনার এলাকার ইউনিয়ন ভূমি অফিসে যান।
  • উপরে উল্লেখিত পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

প্রয়োজনীয় তথ্য:

  • বিভাগ
  • জেলা
  • উপজেলা
  • মৌজা
  • খতিয়ান নং/দাগ নাম্বার/মালিকের নাম

অন্যান্য তথ্য:

  • আপনি একাধিক খতিয়ান একসাথে অনুসন্ধান করতে পারেন।
  • আপনি খতিয়ানের একটি অনুলিপি ডাউনলোড এবং প্রিন্ট করতে পারেন।
  • আপনার যদি খতিয়ান সম্পর্কে কোন প্রশ্ন থাকে, তাহলে আপনি ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের হেল্পলাইনে (+880 2 7169200) যোগাযোগ করতে পারেন।

আমি আশা করি এই তথ্য আপনার বি আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান করতে সাহায্য করবে।

ভূমি সেবা আর এস খতিয়ান

আরএস খতিয়ান হল বাংলাদেশের একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমি রেকর্ড নথি। এটি জরিপের মাধ্যমে ভূমির মালিকানা এবং দখলের একটি রেকর্ড। আরএস খতিয়ানগুলি ভূমি রেকর্ড এবং জরিপ অধিদপ্তর (এলআরএসডি) দ্বারা রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়।

একটি আরএস খতিয়ানে নিম্নলিখিত তথ্য রয়েছে:

  • মৌজার নাম: এটি একটি গ্রাম বা শহরের একটি ভাগ যেখানে ভূমি অবস্থিত।
  • খতিয়ান নম্বর: এটি একটি অনন্য সংখ্যা যা প্রতিটি ভূমি পার্সেলকে চিহ্নিত করে।
  • দাগ নম্বর: এটি একটি মৌজার মধ্যে একটি নির্দিষ্ট ভূমি পার্সেলকে চিহ্নিত করে।
  • মালিকের নাম: এটি ভূমির মালিকের নাম।
  • দখলকারীর নাম: এটি যে ব্যক্তি ভূমি দখল করছে তার নাম।
  • ভূমির শ্রেণী: এটি ভূমির ব্যবহারের ধরণকে বোঝায়, যেমন কৃষি, আবাসিক বা বাণিজ্যিক।
  • ভূমির পরিমাণ: এটি ভূমির এলাকা।

আরএস খতিয়ান বিভিন্ন উদ্দেশ্যে ব্যবহৃত হয়, যার মধ্যে রয়েছে:

  • ভূমি মালিকানা প্রমাণ: এটি ভূমি মালিকানার প্রমাণ হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে।
  • ভূমি কর প্রদান: এটি ভূমি কর প্রদানের জন্য ব্যবহার করা হয়।
  • ভূমি ঋণ: এটি ভূমি ঋণের জন্য জামানত হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে।
  • ভূমি হস্তান্তর: এটি ভূমি হস্তান্তরের জন্য ব্যবহার করা হয়।

আপনি এলআরএসডির ওয়েবসাইটে অনলাইনে আপনার আরএস খতিয়ান দেখতে পারেন। আপনি এলআরএসডির একটি স্থানীয় অফিসে গিয়েও এটি দেখতে পারেন।

একটি আরএস খতিয়ানের একটি নমুনা এখানে দেওয়া হল:

Image of RS খতিয়ান

আরএস খতিয়ান বাংলাদেশে একটি গুরুত্বপূর্ণ নথি। এটি ভূমি মালিকানা এবং দখলের একটি প্রধান প্রমাণ। আপনার ভূমির মালিকানা সম্পর্কে আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে তবে আপনার এলআরএসডির সাথে যোগাযোগ করা উচিত।

আর এস খতিয়ান অনলাইন কপির জন্য আবেদন করতে যা যা লাগবে

আর এস খতিয়ান অনলাইন কপির জন্য আবেদন করতে যা যা লাগবে:

আরো পড়ুনঃ  আবাসিক হোটেল ভাড়ার নিয়ম ২০২৩

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

  • জাতীয় পরিচয়পত্র (NID)
  • মোবাইল নম্বর
  • ইমেইল ঠিকানা
  • আপনার খতিয়ানের মৌজা
  • খতিয়ান নম্বর
  • দাগ নম্বর
  • আপনার ভূমির শ্রেণী
  • আপনার ভূমির পরিমাণ

আবেদন প্রক্রিয়া:

  1. e-Porcha ওয়েবসাইট: https://eporcha.gov.bd/ এ যান।
  2. “খতিয়ান অনলাইন কপি” ট্যাবে ক্লিক করুন।
  3. “আবেদন করুন” বোতামে ক্লিক করুন।
  4. প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করুন।
  5. আপনার NID স্ক্যান করে আপলোড করুন।
  6. আপনার খতিয়ানের মালিকানার প্রমাণ আপলোড করুন।
  7. আবেদন ফি প্রদান করুন।
  8. “সাবমিট” বোতামে ক্লিক করুন।

আবেদন ফি:

  • প্রতি খতিয়ানের জন্য 50 টাকা

প্রক্রিয়াকরণের সময়:

  • আপনার আবেদনটি 24 ঘন্টার মধ্যে প্রক্রিয়া করা হবে।

আপনার আর এস খতিয়ান অনলাইন কপি ডাউনলোড করার জন্য:

  1. e-Porcha ওয়েবসাইটে লগইন করুন।
  2. “খতিয়ান অনলাইন কপি” ট্যাবে ক্লিক করুন।
  3. “আপনার আবেদন” ট্যাবে ক্লিক করুন।
  4. আপনার আবেদনটি খুঁজুন এবং “ডাউনলোড” বোতামে ক্লিক করুন।

দ্রষ্টব্য:

  • আপনার আবেদন করার আগে আপনার NID কার্ডটি আপডেট করা আছে কিনা তা নিশ্চিত করুন।
  • আপনার খতিয়ানের মালিকানার প্রমাণ হিসাবে আপনি আপনার দলিল, সিএস খতিয়ান, বা অন্য কোন প্রাসঙ্গিক নথি আপলোড করতে পারেন।
  • আপনি যদি আপনার আবেদন সম্পর্কে কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে আপনি e-Porcha ওয়েবসাইটে “যোগাযোগ” পাতায় যেতে পারেন।

আর এস খতিয়ান যাচাই করার পর অনলাইনে আবেদন করার নিয়ম

আপনি যদি e-Porcha ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন করতে চান:

১. e-Porcha ওয়েবসাইটে যান: https://eporcha.gov.bd/: https://eporcha.gov.bd/

২. “খতিয়ান অনলাইন কপি” ট্যাবে ক্লিক করুন।

৩. “খুঁজুন” বোতামে ক্লিক করুন।

৪. নিম্নলিখিত তথ্য প্রদান করুন:

  • বিভাগ
  • জেলা
  • উপজেলা
  • মৌজা
  • খতিয়ান নম্বর/দাগ নাম্বার/মালিকের নাম
  • ক্যাপচা কোড

৫. “খুঁজুন” বোতামে ক্লিক করুন।

৬. আপনার খতিয়ানের তথ্য প্রদর্শিত হবে।

৭. “অনলাইনে আবেদন” বোতামে ক্লিক করুন।

৮. প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করুন:

  • আপনার নাম
  • আপনার NID নম্বর
  • আপনার মোবাইল নম্বর
  • আপনার ইমেইল ঠিকানা
  • আপনার খতিয়ানের মালিকানার প্রমাণ
  • আপনার আবেদনের ধরণ

৯. আবেদন ফি প্রদান করুন।

১০. “সাবমিট” বোতামে ক্লিক করুন।

আপনার আবেদনটি 24 ঘন্টার মধ্যে প্রক্রিয়া করা হবে। আপনার আবেদন গ্রহণ করা হলে, আপনাকে একটি SMS এবং ইমেইল পাঠানো হবে।

আপনার আর এস খতিয়ান অনলাইন কপি ডাউনলোড করার জন্য:

১. e-Porcha ওয়েবসাইটে লগইন করুন।

২. “খতিয়ান অনলাইন কপি” ট্যাবে ক্লিক করুন।

৩. “আপনার আবেদন” ট্যাবে ক্লিক করুন।

৪. আপনার আবেদনটি খুঁজুন এবং “ডাউনলোড” বোতামে ক্লিক করুন।

দ্রষ্টব্য:

  • আপনার আবেদন করার আগে আপনার NID কার্ডটি আপডেট করা আছে কিনা তা নিশ্চিত করুন।
  • আপনার খতিয়ানের মালিকানার প্রমাণ হিসাবে আপনি আপনার দলিল, সিএস খতিয়ান, বা অন্য কোন প্রাসঙ্গিক নথি আপলোড করতে পারেন।
  • আপনি যদি আপনার আবেদন সম্পর্কে কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে আপনি e-Porcha ওয়েবসাইটে “যোগাযোগ” পাতায় যেতে পারেন।

আপনি যদি অন্য কোন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন করতে চান, তাহলে সেই ওয়েবসাইটের নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।

পরিশেষে

আমি আশা করছি আপনারা আপনাদের আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান এই প্রশ্নের উওর পেয়েছেন। আরো কিছু জানার থাকলে নিচে কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ।

আরো পড়ুনঃ www.land.gov bd আর এস খতিয়ান

Leave a Comment