কুরিয়ার সার্ভিস খরচ

হ্যালো বন্ধুরা, কেমন আছেন সবাই? আশা করি সকলেই খুব ভালো আছেন। আপনারা অনেকেই কুরিয়ার সার্ভিস খরচ সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। আজকে আমি আপনাদেরকে কুরিয়ার সার্ভিস খরচ সম্পর্কে বলবো। তো চলুন শুরু করা যাক।

কুরিয়ার সার্ভিস খরচ

কুরিয়ার সার্ভিস খরচ
কুরিয়ার সার্ভিস খরচ

কুরিয়ার সার্ভিসের খরচ নির্ভর করে বেশ কিছু বিষয়ের উপর।

কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো:

  • পার্সেলের ওজন: ওজন যত বেশি, খরচ তত বেশি।
  • পার্সেলের আকার: আকার যত বড়, খরচ তত বেশি।
  • ডেলিভারির দূরত্ব: দূরত্ব যত বেশি, খরচ তত বেশি।
  • ডেলিভারির ধরণ: এক্সপ্রেস ডেলিভারির খরচ নিয়মিত ডেলিভারির চেয়ে বেশি।
  • কুরিয়ার কোম্পানি: বিভিন্ন কোম্পানির খরচের হার ভিন্ন হতে পারে।
  • অতিরিক্ত পরিষেবা: সিওডি (Cash on Delivery), বিমা ইত্যাদির জন্য অতিরিক্ত খরচ লাগতে পারে।

কিছু উদাহরণ:

  • ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম:
    • 1 কেজি পর্যন্ত – 100 টাকা
    • 2 কেজি পর্যন্ত – 150 টাকা
    • 5 কেজি পর্যন্ত – 250 টাকা
  • ঢাকা থেকে সিলেট:
    • 1 কেজি পর্যন্ত – 150 টাকা
    • 2 কেজি পর্যন্ত – 200 টাকা
    • 5 কেজি পর্যন্ত – 300 টাকা

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস চার্জ লিস্ট

ওজন পার্সেল মূল্য সুন্দরবন চার্জ
৫০০ গ্রাম ৳১০০০ ৳১২০
১ কেজি ৳৫০০ ৳১১৫
১ কেজি ৳১০০০ ৳১২০
২ কেজি ৳১০০০ ৳১২০

নোট:

  • এই তালিকাটি ঢাকা শহরের জন্য। ঢাকার বাইরে চার্জ একটু বেশি হতে পারে।
  • পার্সেলের মূল্য ৳২০০০ এর বেশি হলে, ৳১০০০ পর্যন্ত ৳১২০ চার্জ এবং বাকি ৳১০০০ এর জন্য ৳১% চার্জ প্রযোজ্য।
  • কন্ডিশনে (COD) পার্সেল পাঠানোর জন্য, ৳১০০০ পর্যন্ত ৳১২০ চার্জ এবং বাকি ৳১০০০ এর জন্য ৳১% চার্জ প্রযোজ্য।
  • রিটার্ন পার্সেলের জন্য, ৳৫০ চার্জ প্রযোজ্য।
  • বিশেষ পণ্য (যেমন: ইলেকট্রনিক ডিভাইস, মূল্যবান জিনিসপত্র) এর জন্য, অতিরিক্ত চার্জ প্রযোজ্য হতে পারে।
আরো পড়ুনঃ  আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান

অন্যান্য কুরিয়ার সার্ভিসের চার্জের সাথে তুলনা:

  • সুন্দরবন কুরিয়ারের চার্জ অন্যান্য কুরিয়ার সার্ভিসের তুলনায় একটু বেশি।
  • তবে, সুন্দরবন কুরিয়ার একটি বিশ্বস্ত ও দ্রুততম কুরিয়ার সার্ভিস।

এস এ পরিবহন

এস এ পরিবহন বাংলাদেশের একটি জনপ্রিয় পরিবহন কোম্পানি। এটি ১৯৭২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এবং ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ এবং রংপুর সহ বাংলাদেশের সকল প্রধান শহরে এর শাখা রয়েছে। এস এ পরিবহন বিভিন্ন ধরণের পরিবহন পরিষেবা প্রদান করে, যার মধ্যে রয়েছে:

  • পার্সেল ও কুরিয়ার পরিষেবা: এস এ পরিবহন বাংলাদেশের সকল প্রধান শহরে পার্সেল ও কুরিয়ার পরিষেবা প্রদান করে। এটি দ্রুত, নির্ভরযোগ্য এবং সাশ্রয়ী মূল্যের।
  • বাস পরিষেবা: এস এ পরিবহন বাংলাদেশের সকল প্রধান শহরের মধ্যে বাস পরিষেবা প্রদান করে। এসি ও নন-এসি উভয় ধরণের বাস সার্ভিস দেয়।
  • ট্রাক পরিষেবা: এস এ পরিবহন বাংলাদেশের সকল প্রধান শহরে ট্রাক পরিষেবা প্রদান করে। এটি বিভিন্ন ধরণের পণ্য পরিবহনের জন্য ট্রাক সরবরাহ করে।

এস এ পরিবহনের সুবিধা:

  • দ্রুত এবং নির্ভরযোগ্য পরিষেবা
  • সাশ্রয়ী মূল্যের
  • বাংলাদেশের সকল প্রধান শহরে শাখা রয়েছে
  • বিভিন্ন ধরণের পরিবহন পরিষেবা প্রদান করে

এস এ পরিবহনের অসুবিধা:

  • টিকিট পাওয়া কঠিন হতে পারে
  • বাস সবসময় সময়মতো ছেড়ে যায় না
  • ট্রাকের ভাড়া একটু বেশি

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস ক্যাশ অন ডেলিভারি

সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস ক্যাশ অন ডেলিভারি
সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস ক্যাশ অন ডেলিভারি

হ্যাঁ, সুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস ক্যাশ অন ডেলিভারি (COD) অফার করে। এটি “কন্ডিশন” নামে পরিচিত।

সুন্দরবন কুরিয়ারের মাধ্যমে COD-এর মাধ্যমে পণ্য পাঠানোর জন্য এখানে ধাপে ধাপে নির্দেশিকা দেওয়া হল:

1. প্রথমে, সুন্দরবন কুরিয়ারের ওয়েবসাইটে যান এবং একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করুন।

2. আপনার অ্যাকাউন্টে লগইন করুন এবং “কন্ডিশন” বিকল্পটি নির্বাচন করুন।

3. প্রেরক এবং প্রাপকের তথ্য পূরণ করুন।

আরো পড়ুনঃ  ঢাকা থেকে সিলেট বিমান ভাড়া কত

4. পণ্যের বিবরণ এবং ওজন লিখুন।

5. COD-এর জন্য প্রদেয় মبلغ লিখুন।

6. পণ্যের সাথে একটি চালান সংযুক্ত করুন।

7. নিকটতম সুন্দরবন কুরিয়ার অফিসে পণ্যটি ড্রপ করুন।

সুন্দরবন কুরিয়ার COD-এর জন্য নিম্নলিখিত চার্জ নেয়:

  • ৳100 পর্যন্ত COD-এর জন্য কোনও চার্জ নেই।
  • ৳101 থেকে ৳1000 পর্যন্ত COD-এর জন্য 1% চার্জ নেওয়া হয়।
  • ৳1001 এবং তার বেশি COD-এর জন্য 0.8% চার্জ নেওয়া হয়।

সুন্দরবন কুরিয়ার COD-এর মাধ্যমে পণ্য পাঠানোর কিছু সুবিধা হল:

  • এটি প্রেরক এবং প্রাপক উভয়ের জন্যই একটি সুবিধাজনক পদ্ধতি।
  • এটি প্রেরককে নিশ্চিত করে যে তারা তাদের পণ্যের জন্য অর্থ প্রদান করবে।
  • এটি প্রাপককে নিশ্চিত করে যে তারা তাদের পণ্য পেয়েছে তার আগে তাদের অর্থ প্রদান করতে হবে না।

সুন্দরবন কুরিয়ার COD-এর মাধ্যমে পণ্য পাঠানোর কিছু অসুবিধা হল:

  • COD-এর জন্য প্রেরককে অতিরিক্ত চার্জ দিতে হয়।
  • COD-এর মাধ্যমে পণ্য পাঠাতে সময় একটু বেশি লাগতে পারে।

করতোয়া কুরিয়ার সার্ভিস খরচ

করতোয়া কুরিয়ার সার্ভিসের খরচ নির্ভর করে পার্সেলের ওজন, আকার, এবং গন্তব্যের উপর।

ঢাকা শহরের মধ্যে

  • ৫০০ গ্রাম পর্যন্ত: ৳৬০
  • ১ কেজি পর্যন্ত: ৳৭০
  • ২ কেজি পর্যন্ত: ৳৮০
  • ৩ কেজি পর্যন্ত: ৳৯০
  • ৪ কেজি পর্যন্ত: ৳১০০
  • ৫ কেজি পর্যন্ত: ৳১১০

ঢাকা থেকে বাইরে

  • ৫০০ গ্রাম পর্যন্ত: ৳৮০
  • ১ কেজি পর্যন্ত: ৳৯০
  • ২ কেজি পর্যন্ত: ৳১০০
  • ৩ কেজি পর্যন্ত: ৳১১০
  • ৪ কেজি পর্যন্ত: ৳১২০
  • ৫ কেজি পর্যন্ত: ৳১৩০

নোট:

  • উপরের তালিকাটি ২০২৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের জন্য।
  • ঢাকা শহরের বাইরে খরচ একটু বেশি হতে পারে।
  • পার্সেলের মূল্য ৳২০০০ এর বেশি হলে, ৳১০০০ পর্যন্ত ৳১২০ চার্জ এবং বাকি ৳১০০০ এর জন্য ৳১% চার্জ প্রযোজ্য।
  • কন্ডিশনে (COD) পার্সেল পাঠানোর জন্য, ৳১০০০ পর্যন্ত ৳১২০ চার্জ এবং বাকি ৳১০০০ এর জন্য ৳১% চার্জ প্রযোজ্য।
  • রিটার্ন পার্সেলের জন্য, ৳৫০ চার্জ প্রযোজ্য।
  • বিশেষ পণ্য (যেমন: ইলেকট্রনিক ডিভাইস, মূল্যবান জিনিসপত্র) এর জন্য, অতিরিক্ত চার্জ প্রযোজ্য হতে পারে।
আরো পড়ুনঃ  হাতে গোলাপ ফুলের ছবি সহ স্ট্যাটাস

কন্টিনেন্টাল কুরিয়ার সার্ভিস খরচ

কন্টিনেন্টাল কুরিয়ার সার্ভিস খরচ
কন্টিনেন্টাল কুরিয়ার সার্ভিস খরচ

কন্টিনেন্টাল কুরিয়ার সার্ভিসের খরচ নির্ভর করে পার্সেলের ওজন, আকার, এবং গন্তব্যের উপর।

ঢাকা শহরের মধ্যে

  • ৫০০ গ্রাম পর্যন্ত: ৳৬০
  • ১ কেজি পর্যন্ত: ৳৭০
  • ২ কেজি পর্যন্ত: ৳৮০
  • ৩ কেজি পর্যন্ত: ৳৯০
  • ৪ কেজি পর্যন্ত: ৳১০০
  • ৫ কেজি পর্যন্ত: ৳১১০

ঢাকা থেকে বাইরে

  • ৫০০ গ্রাম পর্যন্ত: ৳৮০
  • ১ কেজি পর্যন্ত: ৳৯০
  • ২ কেজি পর্যন্ত: ৳১০০
  • ৩ কেজি পর্যন্ত: ৳১১০
  • ৪ কেজি পর্যন্ত: ৳১২০
  • ৫ কেজি পর্যন্ত: ৳১৩০

নোট:

  • উপরের তালিকাটি ২০২৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের জন্য।
  • ঢাকা শহরের বাইরে খরচ একটু বেশি হতে পারে।
  • পার্সেলের মূল্য ৳২০০০ এর বেশি হলে, ৳১০০০ পর্যন্ত ৳১২০ চার্জ এবং বাকি ৳১০০০ এর জন্য ৳১% চার্জ প্রযোজ্য।
  • কন্ডিশনে (COD) পার্সেল পাঠানোর জন্য, ৳১০০০ পর্যন্ত ৳১২০ চার্জ এবং বাকি ৳১০০০ এর জন্য ৳১% চার্জ প্রযোজ্য।
  • রিটার্ন পার্সেলের জন্য, ৳৫০ চার্জ প্রযোজ্য।
  • বিশেষ পণ্য (যেমন: ইলেকট্রনিক ডিভাইস, মূল্যবান জিনিসপত্র) এর জন্য, অতিরিক্ত চার্জ প্রযোজ্য হতে পারে।

পার্সেল কুরিয়ার করতে কত টাকা লাগে?

পার্সেল কুরিয়ার করতে কত টাকা লাগবে তা নির্ভর করে বেশ কিছু বিষয়ের উপর।

প্রধান বিষয়গুলো হলো:

  • পার্সেলের ওজন: ওজন যত বেশি, খরচ তত বেশি।
  • পার্সেলের আকার: আকার বড় হলে, খরচ একটু বেশি হতে পারে।
  • পরিবহনের দূরত্ব: দূরত্ব যত বেশি, খরচ তত বেশি।
  • কুরিয়ার কোম্পানি: বিভিন্ন কোম্পানির খরচের হার ভিন্ন হতে পারে।
  • সেবার ধরন: এক্সপ্রেস ডেলিভারি, স্ট্যান্ডার্ড ডেলিভারি, ইত্যাদির খরচ ভিন্ন।

কিছু উদাহরণ:

  • ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে:
    • ৫০০ গ্রাম পর্যন্ত: ৮০-১০০ টাকা
    • ১ কেজি: ১০০-১২০ টাকা
    • ২ কেজি: ১২০-১৪০ টাকা
  • ঢাকা থেকে সিলেটে:
    • ৫০০ গ্রাম পর্যন্ত: ১০০-১২০ টাকা
    • ১ কেজি: ১২০-১৪০ টাকা
    • ২ কেজি: ১৪০-১৬০ টাকা

 

পরিশেষে

আমি আশা করছি আপনারা আপনাদের কুরিয়ার সার্ভিস খরচ এই প্রশ্নের উওর পেয়েছেন। আরো কিছু জানার থাকলে নিচে কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ।
আরো পড়ুনঃ দুবাই যেতে কত বছর বয়স লাগে

Leave a Comment