এলার্জি ঔষধ এর নাম বাংলাদেশ

হ্যালো বন্ধুরা, কেমন আছেন সবাই? আশা করি সকলেই খুব ভালো আছেন। আপনারা অনেকেই এলার্জি ঔষধ এর নাম বাংলাদেশ সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। আজকে আমি আপনাদেরকে এলার্জি ঔষধ এর নাম বাংলাদেশ সম্পর্কে বলবো। তো চলুন শুরু করা যাক।

এলার্জি ঔষধ এর নাম বাংলাদেশ

বাংলাদেশে বিভিন্ন ধরণের অ্যালার্জির ওষুধ পাওয়া যায়। এলার্জির ওষুধের সবচেয়ে সাধারণ ধরণ হল অ্যান্টিহিস্টামাইন। অ্যান্টিহিস্টামাইন হিস্টামিনের ক্রিয়াকে ব্লক করে কাজ করে, যা একটি রাসায়নিক যা অ্যালার্জির লক্ষণগুলির কারণ হয়। .

বাংলাদেশে পাওয়া কিছু সাধারণ অ্যান্টিহিস্টামাইনের মধ্যে রয়েছে:

  • সেটিরিজিন (জিরটেক)

    Image of সেটিরিজিন (জিরটেক) অ্যালার্জির ওষুধ
  • লোরাটাডিন (ক্লেরিটিন)

  • ডেক্সক্লোরফেনিরামিন (পোলারামিন)

  • ফেক্সোফেনাডিন (অ্যালিগ্রা)

  • সেটিরিজিন এবং লোরাটাডিন উভয়ই গর্ভবতী বা স্তন্যদানকারী মহিলাদের জন্য নিরাপদ বলে মনে করা হয়।

অন্যান্য ধরণের অ্যালার্জি ওষুধের মধ্যে রয়েছে:

  • ডিকোঙ্গেস্ট্যান্ট: ডিকোঙ্গেস্ট্যান্ট নাকের রক্তনালীগুলিকে সংকুচিত করে কাজ করে, যা احتقان কমাতে সাহায্য করে। স্টেরয়েড: স্টেরয়েড প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে। এগুলি সাধারণত গুরুতর অ্যালার্জির জন্য ব্যবহৃত হয়।
  • লিউকোট্রিয়েন মডিফায়ার: লিউকোট্রিয়েন মডিফায়ারগুলি লিউকোট্রিয়েনের ক্রিয়াকে ব্লক করে কাজ করে, যা অ্যালার্জির লক্ষণগুলির কারণ হওয়া একটি রাসায়নিক।

অ্যালার্জির জন্য সঠিক ওষুধ নির্ভর করবে আপনার অ্যালার্জির তীব্রতা এবং আপনার ব্যক্তিগত চিকিৎসা ইতিহাসের উপর। অ্যালার্জির ওষুধ নেওয়ার আগে আপনার ডাক্তার বা ফার্মাসিস্টের সাথে কথা বলা গুরুত্বপূর্ণ।

স্কিন এলার্জি ঔষধের নাম

এখানে ত্বকের অ্যালার্জির জন্য কিছু সাধারণ ওষুধের নাম দেওয়া হল:

  • অ্যান্টিহিস্টামাইন চুলকানি, ফোলাভাব এবং ফুসকুড়ি হ্রাস করতে সাহায্য করে। অ্যালার্জির প্রতিক্রিয়া। এগুলি ক্রিম, মলম, লোশন, জেল, স্প্রে, ট্যাবলেট এবং ক্যাপসুল হিসাবে পাওয়া যায়।

    Image of অ্যান্টিহিস্টামাইন অ্যালার্জি ওষুধ
  • কর্টিকোস্টেরয়েড প্রদাহ এবং ফোলাভাব কমাতে সাহায্য করে। এগুলি ক্রিম, মলম, লোশন, জেল, স্প্রে, নাকের স্প্রে এবং ইনহেলার হিসাবে পাওয়া যায়।

    Image of কর্টিকোস্টেরয়েড অ্যালার্জি ওষুধ
  • ক্যালসিনিয়াম নিউরোট্রপিন ইনহিবিটরস (সিএনআই) গুরুতর অ্যালার্জির জন্য ব্যবহৃত হয় ত্বকের অবস্থা যা স্টেরয়েডের সাথে সাড়া দেয় না। এগুলি মুখের মাধ্যমে ওষুধ হিসাবে পাওয়া যায়।

  • টপিকাল অ্যান্টিবায়োটিক সংক্রমণ প্রতিরোধে সাহায্য করে যা ত্বকের ক্ষত বা ফোলাভাবের কারণে হতে পারে। এগুলি ক্রিম, মলম, লোশন এবং জেল হিসাবে পাওয়া যায়।

    Image of স্থানীয় অ্যান্টিবায়োটিক অ্যালার্জি ওষুধ

ত্বকের অ্যালার্জির জন্য সঠিক ওষুধ নির্ভর করবে অ্যালার্জির তীব্রতা এবং আপনার ব্যক্তিগত চিকিৎসা ইতিহাসের উপর। ত্বকের অ্যালার্জির জন্য ওষুধ নেওয়ার আগে আপনার ডাক্তার বা ফার্মাসিস্টের সাথে কথা বলা গুরুত্বপূর্ণ।

আরো পড়ুনঃ  জিনসেং সিরাপ এর অপকারিতা

স্কয়ার এলার্জির ঔষধ

স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড বাংলাদেশের একটি বহুজাতিক ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি। এটি বিভিন্ন ধরণের অ্যালার্জির ওষুধ সহ বিভিন্ন ধরণের ওষুধ উৎপাদন করে। স্কয়ারের কিছু সাধারণ অ্যালার্জির ওষুধের মধ্যে রয়েছে:

  • এ্যালাট্রোল সেটিরিজিনের একটি ব্র্যান্ড নাম। , একটি অ্যান্টিহিস্টামাইন যা চুলকানি, ফোলাভাব এবং ফুসকুড়ি হ্রাস করতে সাহায্য করে। এটি ট্যাবলেট, সিরাপ এবং ড্রপ হিসাবে পাওয়া যায়।

  • অ্যাজমাস্ট লোরাটাডিনের একটি ব্র্যান্ড নাম, একটি অ্যান্টিহিস্টামাইন যা চুলকানি, ফোলাভাব এবং ফুসকুড়ি হ্রাস করতে সাহায্য করে। এটি ট্যাবলেট এবং সিরাপ হিসাবে পাওয়া যায়।

  • ন্যাসিভিয়ন ফেক্সোফেনাডিনের একটি ব্র্যান্ড নাম, একটি অ্যান্টিহিস্টামাইন যা চুলকানি, ফোলাভাব এবং ফুসকুড়ি হ্রাস করতে সাহায্য করে। এটি ট্যাবলেট হিসাবে পাওয়া যায়।

  • বেকোমেথ বেকোমেথাসোনের একটি ব্র্যান্ড নাম, একটি কর্টিকোস্টেরয়েড যা প্রদাহ এবং ফোলাভাব কমাতে সাহায্য করে। এটি ক্রিম, মলম এবং লোশন হিসাবে পাওয়া যায়।

স্কয়ারের অ্যালার্জির ওষুধের দাম ওষুধের ধরন এবং শক্তির উপর নির্ভর করে পরিবর্তিত হয়। অ্যালার্জির ওষুধ নেওয়ার আগে আপনার ডাক্তার বা ফার্মাসিস্টের সাথে কথা বলা গুরুত্বপূর্ণ।

চুলকানির ট্যাবলেট এর নাম

চুলকানির জন্য বিভিন্ন ধরণের ট্যাবলেট পাওয়া যায়। কিছু সাধারণ বিকল্পগুলির মধ্যে রয়েছে:

  • অ্যান্টিহিস্টামাইন:

    • Cetirizine (Zyrtec): এটি একটি দ্বিতীয় প্রজন্মের অ্যান্টিহিস্টামাইন যা চুলকানি, ফোলাভাব এবং ফুসকুড়ি কমাতে সাহায্য করে। এটি
      • Loratadine (Claritin): এটি আরেকটি দ্বিতীয় প্রজন্মের অ্যান্টিহিস্টামাইন যা Cetirizine-এর মতো কাজ করে।
    • Diphenhydramine (Benadryl): এটি একটি প্রথম প্রজন্মের অ্যান্টিহিস্টামাইন যা চুলকানি, ফোলাভাব এবং ফুসকুড়ি কমাতে সাহায্য করে।
  • কর্টিকোস্টেরয়েড:

    • Prednisone: এটি একটি শক্তিশালী প্রদাহ-বিরোধী ওষুধ যা গুরুতর চুলকানির জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।
  • অন্যান্য:

    • Montelukast (Singulair): এটি লিউকোট্রিয়েন রিসেপ্টর অ্যান্টাগোনিস্ট যা চুলকানি এবং ফুসকুড়ি কমাতে সাহায্য করে।
    • Ciclosporin (Neoral): এটি একটি ইমিউনোসাপ্রেসেন্ট ওষুধ যা গুরুতর চুলকানির জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।
আরো পড়ুনঃ  মুখের দুর্গন্ধ দূর করার টুথপেস্ট

আপনার জন্য কোন ট্যাবলেটটি সঠিক তা নির্ভর করবে আপনার চুলকানির কারণ, তীব্রতা এবং আপনার ব্যক্তিগত চিকিৎসা ইতিহাসের উপর। আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলুন যে আপনার জন্য কোন বিকল্পটি সবচেয়ে ভালো হবে।

ঠান্ডা এলার্জির ঔষধ নাম

ঠান্ডা এলার্জির কিছু ঔষধের নাম:

অ্যান্টিহিস্টামিন:

  • লোরাটাডিন: ক্লারিটিন, লোরা-এম, লোরেল
  • সেটিরিজিন: জিরটেক, এলার্জিন, সেরোজিন
  • ডেক্সক্লোরফেনিরামিন: পোলারামিন
  • ফেক্সোফেনাদিন: অ্যালেগ্রা
  • Cetirizine: Zyrtec, Alergin, Serozin

নাকের স্প্রে:

  • স্টেরয়েড: ফ্লিক্সোনাস, নাসোনেক্স, রিনোকোর্ট
  • অ্যান্টিহিস্টামিন: নাসাল, আজেলাস্টিন
  • ডেকনজেস্ট্যান্ট: ন্যাসো স্প্রে, ওট্রিনোজ

চোখের ড্রপ:

  • অ্যান্টিহিস্টামিন: কেটোটিফেন, পেটালাইন
  • স্টেরয়েড: ফ্লিক্সোনাস, লোটেম্যাক্স

মৌখিক ড্রপ:

  • অ্যান্টিহিস্টামিন: পোলারামিন, লোরা-এম
  • ডেকনজেস্ট্যান্ট: ন্যাসো ড্রপ

মনে রাখবেন:

  • এই ঔষধগুলো ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া ব্যবহার করা উচিত নয়।
  • এসব ঔষধের কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকতে পারে।
  • গর্ভবতী এবং স্তন্যদানকারী মায়েদের জন্য এসব ঔষধ ব্যবহারের পূর্বে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

এছাড়াও, ঠান্ডা এলার্জি থেকে রক্ষা পেতে নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি গ্রহণ করা যেতে পারে:

  • এলার্জির কারণ এড়িয়ে চলা: ধুলোবালি, পোষা প্রাণীর লোম, পরাগরেণু, ঠান্ডা আবহাওয়া ইত্যাদি।
  • নিয়মিত হাত ধোয়া: বিশেষ করে বাইরে থেকে এসে এবং খাবার খাওয়ার আগে।
  • নাক পরিষ্কার রাখা: নিয়মিত স্যালাইন ওয়াটার দিয়ে নাক ধোয়া।
  • ঘর পরিষ্কার রাখা: ধুলোবালি জমা না হতে নিয়মিত ঘর পরিষ্কার করা।
  • পর্যাপ্ত ঘুম এবং বিশ্রাম নেওয়া।
  • স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়া।
আরো পড়ুনঃ  ডায়াবেটিস মাপার মেশিনের দাম কত

এলার্জির এন্টিবায়োটিক ঔষধ

এলার্জির চিকিৎসায় এন্টিবায়োটিক ব্যবহার করা হয় না। এলার্জি হলো শরীরের অতিরিক্ত প্রতিক্রিয়া যা হিস্টামিনের মতো রাসায়নিকের কারণে হয়। এন্টিবায়োটিক ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য ব্যবহৃত হয়।

এলার্জির চিকিৎসায় সাধারণত নিম্নলিখিত ঔষধ ব্যবহার করা হয়:

  • অ্যান্টিহিস্টামাইন: এগুলি হিস্টামিনের প্রভাবকে ব্লক করে কাজ করে।
  • কর্টিকোস্টেরয়েড: এগুলি প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে।
  • ডেকনজেস্ট্যান্ট: এগুলি নাকের রক্তনালীগুলিকে সংকুচিত করে কাজ করে, যা احتقان কমাতে সাহায্য করে।
  • লিউকোট্রিয়েন মডিফায়ার: এগুলি লিউকোট্রিয়েনের ক্রিয়াকে ব্লক করে কাজ করে, যা এলার্জির লক্ষণগুলির কারণ হওয়া একটি রাসায়নিক।

কিছু ক্ষেত্রে, এলার্জির চিকিৎসায় ইমিউনোথেরাপি ব্যবহার করা যেতে পারে। ইমিউনোথেরাপি হলো একটি ধরনের চিকিৎসা যা শরীরকে এলার্জেনের প্রতি কম সংবেদনশীল হতে সাহায্য করে।

আপনার যদি এলার্জি থাকে, তাহলে আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলুন। আপনার ডাক্তার আপনার এলার্জির তীব্রতা এবং আপনার ব্যক্তিগত চিকিৎসা ইতিহাসের উপর ভিত্তি করে আপনার জন্য সঠিক চিকিৎসা বিকল্প নির্ধারণ করতে পারবেন।

এলার্জি ঔষধ এর নাম মলম

এলার্জির জন্য বিভিন্ন ধরণের মলম পাওয়া যায়। এলার্জির ধরন এবং তীব্রতার উপর নির্ভর করে আপনার জন্য কোন মলমটি সঠিক তা নির্ধারণ করা গুরুত্বপূর্ণ।

কিছু সাধারণ এলার্জি মলমের নাম:

  • স্টেরয়েড মলম:
    • Hydrocortisone: হাইড্রোকোর্টিসোন ক্রিম, লোশন, মলম
    • Betamethasone: বেটামেথাসোন ক্রিম, লোশন, মলম
    • Mometasone: মোমেটাসোন ক্রিম, লোশন, মলম
  • অ্যান্টিহিস্টামাইন মলম:
    • Diphenhydramine: Benadryl ক্রিম
    • Ketotifen: Zaditen ক্রিম
  • অন্যান্য:
    • Calamine lotion: ক্যালamine লোশন
    • Menthol cream: মেন্থল ক্রিম

মলম ব্যবহারের সতর্কতা:

  • মলম ব্যবহারের পূর্বে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।
  • মলম ব্যবহারের সময় নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।
  • মলম ব্যবহারের পর হাত ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।
  • খোলা ক্ষত বা চোখের সংস্পর্শে মলম ব্যবহার করবেন না।
  • মলম ব্যবহারের ফলে যদি ত্বকে জ্বালা বা প্রদাহ দেখা দেয়, তাহলে ব্যবহার বন্ধ করুন এবং ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন।

পরিশেষে

আমি আশা করছি আপনারা আপনাদের এলার্জি ঔষধ এর নাম বাংলাদেশ এই প্রশ্নের উওর পেয়েছেন। আরো কিছু জানার থাকলে নিচে কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ।

আরো পড়ুনঃ বাচ্চাদের সর্দি কাশির ঔষধের নাম

Leave a Comment