লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিউল আজিম অর্থ

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিউল আজিম অর্থ হল “আল্লাহ ব্যতীত কোনো শক্তি বা ক্ষমতা নেই, তিনি মহান ও মহিমাময়।” এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ইসলামি দোয়া যা বিভিন্ন পরিস্থিতিতে পড়া হয়, যেমন কঠিন সময়ে, সাহায্য চাওয়ার সময়, বা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করার সময়।

এই দোয়ার প্রথম অংশ, “লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিউল আজিম”, এর অর্থ হল “আল্লাহ ছাড়া কোনো শক্তি বা ক্ষমতা নেই।” এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ সত্যের কথা স্মরণ করিয়ে দেয় যে আল্লাহই একমাত্র সত্যিকারের শক্তি এবং ক্ষমতার উৎস। আমরা নিজেদের শক্তি বা ক্ষমতার উপর নির্ভর করলে আমরা বিপদে পড়তে পারি, কিন্তু যখন আমরা আল্লাহর উপর নির্ভর করি তখন আমরা নিরাপদ থাকি।

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিউল আজিম দোয়ার দ্বিতীয় অংশ, “আলিয়ুল আজিম“, এর অর্থ হল “তিনি মহান ও মহিমাময়।” এটি আল্লাহর মহত্ত্ব এবং মহিমাকে স্মরণ করিয়ে দেয়। তিনি সবকিছুর উপরে এবং তাঁর ক্ষমতা অসীম। আমরা যখন তাঁর মহত্ত্ব এবং মহিমাকে স্মরণ করি তখন আমরা তাঁর কাছে আত্মসমর্পণ করতে এবং তাঁর ইচ্ছাকে মেনে নিতে সক্ষম হই।

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিউল আজিম একটি শক্তিশালী দোয়া যা আমাদের বিভিন্ন উপায়ে সাহায্য করতে পারে। এটি আমাদের বিপদে সাহায্য করতে পারে, আমাদের সাহায্য চাওয়ার সাহস দিতে পারে, এবং আমাদের আল্লাহর উপর নির্ভর করতে শেখাতে পারে।

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিউল আজিম আরবি

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ আলিউল আজিম আরবি

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিউল আজিম এর অর্থ হল “আল্লাহ ছাড়া কোনো শক্তি বা শক্তি নেই, তিনি মহান এবং বিশাল।” এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ইসলামী বাক্যাংশ যা প্রায়ই আল্লাহর উপর ভরসা এবং আস্থা প্রকাশ করার জন্য ব্যবহৃত হয়। এটি কঠিন মুহূর্তগুলিতে শক্তি এবং সাহস প্রদান করতে পারে।

আরো পড়ুনঃ  সালাতুল তাসবিহ নামাজের নিয়ত

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিউল আজিম এর আরবি পাঠ্য হল:

لَا حَوْلَ وَلَا قُوَّةَ إِلَّا بِاللهِ الْعَلِيِّ الْعَظِيمِ

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিউল আজিম এর ফজিলত

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ এর ফজিলত

“লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিউল আজিম” এর অর্থ হল “আল্লাহ ছাড়া কোনো শক্তি বা ক্ষমতা নেই।” এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ইসলামিক দোয়া যা মুসলমানরা বিভিন্ন পরিস্থিতিতে ব্যবহার করে।

এই দোয়ার অনেক ফজিলত রয়েছে। এর মধ্যে কিছু হল:

  • এটি একটি শক্তিশালী জিকিরের অংশ।
  • এটি আল্লাহর উপর ভরসা এবং আস্থা বাড়ায়।
  • এটি দুশ্চিন্তা এবং উদ্বেগ দূর করতে সাহায্য করে।
  • এটি অসুস্থতা থেকে সুস্থতা লাভের জন্য সাহায্য করতে পারে।
  • এটি পাপ থেকে ক্ষমা লাভের জন্য সাহায্য করতে পারে।
  • এটি জান্নাতের দরজা খুলতে সাহায্য করতে পারে।
আরো পড়ুনঃ  যোহরের নামাজের শেষ সময়

হাদীস শরীফে

হাদীস শরীফে এই দোয়ার ফজিলত সম্পর্কে অনেক বর্ণনা এসেছে। রাসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেন, “যে ব্যক্তি প্রতিদিন একশত বার ‘লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ’ বলে, তার গুনাহ ক্ষমা করা হবে, যদিও সে সমুদ্রের পরিমাণ পাপ করে থাকুক।”

এই দোয়াটি যেকোনো সময় এবং যেকোনো স্থানে পড়া যেতে পারে। তবে, কিছু বিশেষ সময় এবং স্থানে এটি পড়ার বিশেষ ফজিলত রয়েছে। যেমন, ফজরের নামাজের পর, আসরের নামাজের পর, জুমার দিনে, এবং রাতের বেলা।

“লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিউল আজিম” একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দোয়া যা মুসলমানদের জীবনে অনেক উপকার বয়ে আনতে পারে। তাই, এই দোয়াটি যথাসম্ভব বেশি বেশি পড়ার চেষ্টা করা উচিত।

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ পাঠের সওয়াব

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ একটি গুরুত্বপূর্ণ দোয়া, যা মুসলিমদের কাছে খুবই জনপ্রিয়। এটি একটি শক্তিশালী যিকর, যা পাঠ করলে অনেক ফজিলত ও সওয়াব লাভ করা যায়।

আরো পড়ুনঃ  দুই অক্ষর দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ এর অর্থ হলো, “আল্লাহ ব্যতীত কোনো শক্তি বা ক্ষমতা নেই।” এই দোয়াটি পাঠ করলে একজন মুসলিম তার অন্তরকে আল্লাহর উপর ভরসা করতে শেখেন। তিনি বুঝতে পারেন যে, সবকিছুর মালিক আল্লাহ। তিনিই একমাত্র সাহায্যকারী ও রক্ষাকারী।

লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ পাঠের অনেক ফজিলত ও সওয়াব রয়েছে। এর মধ্যে কয়েকটি হলো:

  • আল্লাহর সাহায্য লাভের কারণ হয়।
  • পাপ থেকে মুক্তি লাভের কারণ হয়।
  • ইবাদতে সাহায্য লাভের কারণ হয়।
  • দুশ্চিন্তা ও উদ্বেগ দূর হয়।
  • মন্দ কাজ থেকে বিরত থাকার কারণ হয়।
  • জান্নাত লাভের কারণ হয়।

হাদিসে লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ পাঠের ফজিলত সম্পর্কে অনেক বর্ণনা রয়েছে। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “যে ব্যক্তি লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ একশত বার পাঠ করবে, তার জন্য আল্লাহ পাঁচশত নেকি লিখবেন, তার পাঁচশত গুনাহ মাফ করবেন, এবং তার জন্য পাঁচশত মর্যাদা বৃদ্ধি করবেন।” (তিরমিজি)

আবু দাউদ শরিফে বর্ণিত আছে যে, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, “যে ব্যক্তি লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ একশত বার পাঠ করবে, তার জন্য জান্নাতের একটি দরজা খুলে দেওয়া হবে।”

**সুতরাং, মুসলিমদের উচিত লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহ দোয়াটি বেশি বেশি পাঠ করা। এটি পাঠ করলে আল্লাহর সাহায্য ও রহমত লাভ করা যাবে।

আরো পড়ুনঃ দোয়া কুনুত বাংলা উচ্চারণ সহ অর্থ, বাচ্চাদের বদনজরের রুকইয়াহ ও দোয়া, ইসলামিক স্ট্যাটাস আরবি সহ

1 thought on “লা হাওলা ওয়ালা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহিল আলিউল আজিম অর্থ”

Leave a Comment